bashonti nibas

৭১ টাকায় নারীদের জন্য আবাসিক হোটেল – বাসন্তী নিবাস

বাসন্তী নিবাস

৭১ টাকায় নারীদের জন্য আবাসিক হোটেল

ঢাকা শহরে কিংবা অন্য যে কোনও শহর এলাকায় একজন নারী শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিতে কিংবা চাকরির সন্ধানে বা কাজে এলে তাকে আবাসন সমস্যায় পড়তে হয়। শহরে পরিচিত বা আত্মীয়-স্বজন থাকলে খুব একটা সমস্যা হয় না বটে তবে সবার এমন সুবিধা থাকে না। যার পরিচিত কেউ নেই বা যিনি স্বেচ্ছায় আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় উঠতে চান না তেমন নারীদের অনেক শঙ্কা মাথায় নিয়ে উঠতে হয় আবাসিক হোটেলে। আর বসবাসের সময়টা একটু বেশি হলে নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে অনেকেই আবাসিক হোটেলে না গিয়ে হোস্টেল বেছে নেন। সেখানেও গুনতে হয় অতিরিক্ত অর্থ। কারণ হোস্টেলের ভাড়া মাসিক চুক্তিতে দিতে হয়। নারীদের আবাসনের এমন সংকট দূর করতে এবং নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে ‘বাসন্তী নিবাস’ তৈরি করছে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন।

চাকরিপ্রার্থী নারী ২৯৯ ও অন্য পেশার নারীরা থাকতে পারবেন ৮৮০ টাকা করে। ৮ মার্চ নারী দিবসে এই বাসন্তী নিবাস উদ্বোধন হবে বলে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা কিশোর কুমার দাশ। বুধবার সরেজমিনে দেখা যায়, তিনতলার পুরো ফ্লোরেই করা হচ্ছে নারীদের জন্য এই নিবাস। একটা রুমে ১৮টি বাংক বেড, প্রতি সারিতে চারটি করে বাংক বেড বসানো হয়েছে, যেখানে ওপরতালায় একজন ও নিচতলায় একসঙ্গে থাকতে পারবেন ৩৬ জন নারী।

জানতে চাইলে বিদ্যানন্দ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবক দেশ রূপান্তরকে বলেন,  আমাদের এই হোটেলে শিক্ষার্থী-চাকরিপ্রার্থী কিংবা সাধারণ নারীরা সীমিত সময়ের জন্য থাকার সুযোগ পাবেন এখানে। অভিভাবকরা যাতে তার সন্তানকে একা পাঠিয়ে নিশ্চিন্তে থাকেন, সেটি বিবেচনা করে তৈরি করা হচ্ছে বাসন্তী নিবাস। তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি রাত যাপনের খরচ ধরা হয়েছে ৭১ টাকা আর চাকরিপ্রার্থীদের জন্য ২৯৯ টাকা। এর বাইরে সাধারণ নারীরা থাকতে পারবেন। তবে তাদের খরচ করতে হবে ৮৮০ টাকা। এই ভাড়ার সঙ্গে অন্তর্ভুক্ত থাকবে শুধু নাশতা। নাশতা হিসেবে বিস্কুট, একটি কলা এবং এক কাপ কফি পাওয়া যাবে। বাদ বাকি খাবার বিদ্যানন্দ থেকে কেনা যাবে। বাসন্তী নিবাসে থাকতে হলে একজন শিক্ষার্থীকে কিংবা একজন চাকরিপ্রার্থী নারীকে তার প্রমাণস্বরূপ কাগজপত্র দেখাতে হবে।